হাতছাড়া একটি রাজ্য! বিপাকে বিজেপি, সরকার গঠনের দাবি জানাল কংগ্রেস

তিন বিজেপি বিধায়ক কংগ্রেসে যোগ দিয়েছেন,অনাস্থা আনা হয়েছে বিধানসভায়, মণিপুরে বিজেপি প্রবল সংকটের মধ্যে রয়েছে।বৃহস্পতিবার নয় জন বিধায়ক এন বিরেণ সিংয়ের বিজেপি নেতৃত্বাধীন জোট সরকারকে সমর্থন প্রত্যাহার করার একদিন পরই মণিপুরে সরকার গঠনের দাবি কংগ্রেসের পক্ষ থেকে করা হয়েছে।অনাস্থার ফল বিজেপির বিপক্ষে গেলে উত্তর-পূর্বের এই রাজ্য হাতছাড়া হবে গেরুয়া শিবিরের।সিনিয়র কংগ্রেস নেতা ও প্রাক্তন চিফ মিনিনিজার ওকারাম ইবোবি সিং রাজ্যপাল নাজমা হেপতুল্লাহর সাথে বিরেণ সিংহ সরকারের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দেওয়ার জন্য মণিপুর বিধানসভার বিশেষ অধিবেশন চেয়েছেন।

তৃণমূল কংগ্রেসের এক জন ও নির্দল মিলিয়ে আরও পাঁচজন বিধায়ক সমর্থন প্রত্যাহার করেন। কংগ্রেসের ১২ বিধায়ক মণিপুর বিধানসভার সেক্রেটারিকে স্পিকার ইয়ুমনাম খেমচাঁদকে অপসারণের জন্য নোটিশ দিয়েছেন। নোটিসে স্পিকার খেমচাঁদের সাত কংগ্রেস বিধায়ককে অযোগ্য ঘোষণা করার জন্য পূর্বের ২২ জুনের তারিখ থেকে ১৮ জুন করার সিদ্ধান্তের চ্যালেঞ্জকে চ্যালেঞ্জ জানানো হয়েছে।

কংগ্রেস নেতা মেঘচন্দ্র সিংহ নোটিশ জমা দিয়ে সংবিধানের ১৭৯ (সি) উদ্ধৃতি দিয়ে বলেছেন যে স্পিকার খেমচাঁদ আর অযোগ্যতার বিষয়টি সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন না। সিং বলেছেন, অপসারণ স্থগিত না হওয়া পর্যন্ত স্পিকার বিধায়কদের অযোগ্য ঘোষণা করতে শক্তিহীন।মণিপুরে নতুন ঘটনা ঘটার পরে বিজেপির তিন বিধায়ক পদত্যাগ এবং জাতীয়তাবাদী পিপলস পার্টির (এনপিপি) চারটি মন্ত্রীর সহ ছয় বিধায়ককে সমর্থন প্রত্যাহার করা হয়েছে।বীরেন সিং সরকারকে পদত্যাগ ও সমর্থন প্রত্যাহার তার স্থায়িত্বকে হুমকিস্বরূপ করেছে এবং রাজ্যসভা আসনটি ধরে রাখার বিজেপির সম্ভাবনাও ক্ষতিগ্রস্থ করেছে। মণিপুরে একটি রাজ্যসভা আসন রয়েছে যার জন্য শুক্রবার ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। উত্তর-পূর্বের সাতটি রাজ্যের মধ্যে অসমে ২০১৬ সালে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ক্ষমতায় দখল করে বিজেপি।তারপর একে একে অন্য রাজ্যগুলোয় আঞ্চলিক দলের সঙ্গে জোট গড়ে সরকার পরিচালনায় বিজেপি।

Facebook Comments

Recommended For You

About the Author: বিটুল আলি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *